.

জঙ্গলে অসামাজিক কাজের সময় মা'দক-নারীসহ হাতেনাতে ধ'রা পড়ল ৩ যুবলীগ নেতা

সিলেট টাইমস ডেস্কঃ বরিশালের উজিরপুরে অসামাজিক কার্যকলাপ ও ইয়াবা সেবনকালে আওয়ামী লীগ-যুবলীগ নেতা, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি এবং এক নারীসহ চারজনকে গ্রে'ফতার করেছে পু'লিশ।

বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) রাত ১২টার দিকে উপজে'লার গুঠিয়া ইউনিয়নের দাসেরহাট গ্রামের একটি জঙ্গলের মধ্যে থাকা পরিত্যক্ত ঘর থেকে তাদেরকে গ্রে'ফতার করা হয়। এ সময় তাদের নিকট থেকে ইয়াবা সেবনের সরঞ্জামাদিসহ আট পিস ইয়াবা উ'দ্ধার করা হয়েছে।

তাদের বি'রুদ্ধে মা'দকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মা'মলা দায়েরের পর শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে আ'দালতের মাধ্যমে জে'ল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

গ্রে'প্তারকৃতরা হলেন, সাবেক উপজে'লা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আওয়ামী লীগ নেতা আতাহার হোসেন খান (৪৫), দাসেরহাট জেডএ খান মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি স্থানীয় যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর হাওলাদার (৩৫), স্থানীয় যুবলীগ নেতা চিহ্নিত মা'দক বিক্রেতা সাইফুল ইস'লাম (৩২) ও ডহরপাড়া গ্রামের মৃ'ত আব্দুর রশিদের মে'য়ে স্বামী পরিত্যক্তা মাইশা আক্তার মুন্নী।

পু'লিশ জানিয়েছে, গো'পন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে থা'না পু'লিশ খবর পায় গুঠিয়ার রৈভদ্রাদি গ্রামের জঙ্গলের মধ্যে একটি পরিত্যক্ত ঘরে ইয়াবা সেবন ও অসামাজিক কার্যকলাপ চলছে। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় রাত ১২টার দিকে ওই জঙ্গলে অ'ভিযান চালায় থা'না পু'লিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মানিকসহ অন্যান্যরা।

তখন জঙ্গলে থাকা স্থানীয় নান্না মুন্সির ওই পরিত্যক্ত ছোট্ট ঘরের মধ্যে ইয়াবা সেবনরত অবস্থায় ওই চারজনকে আ'ট'ক করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে আট পিস ইয়াবা ও ইয়াবা সেবনের বিভিন্ন সরঞ্জামাদি উ'দ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে উজিরপুর মডেল থা'নার ভারপ্রাপ্ত কর্মক'র্তা (ওসি) শিশির কুমা'র পাল জানান, ‘ইয়াবাসহ চার জন আ'ট'কের ঘটনায় এসআই মিজানুর রহমান বাদী হয়ে মা'দকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মা'মলা দায়ের করেছে। একই সাথে গ্রে'ফতারকৃতদের ওই মা'মলায় শুক্রবার দুপুরে আ'দালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’

স্থানীয় একাধিক বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ‘গ্রে'ফতার হওয়া এই গ্রুপটি এর আগে স্থানীয় দাসেরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও জেড.এ.খান মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভবনের প্রায় রাতেই মা'দকের বড় আসর বসাতো। যা চলতো গভীর রাত পর্যন্ত।

এছাড়াও এই গ্রুপটি মা'দক সেবনের পাশাপাশি আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ইয়াবা এনে গুঠিয়ার চিহ্নিত মা'দক বিক্রতাদের দিয়ে গ্রামে ছড়াচ্ছে। তবে এরা সকলে স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পায়নি। সম্প্রতি কিছুদিন আগে তারা স্থানীয় এক সাংবাদিকের উপর হা'মলা চালিয়ে আ'হত করেছিলো।’
উল্লেখ্য, গ্রে'ফতারকৃত যুবলীগ নেতা সাইফুল ইস'লাম ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি জাহাঙ্গীর হাওলাদার কয়েকমাস আগেও ইয়াবাসহ গ্রে'প্তার হয়ে কারাগারে ছিলো। তাদের বি'রুদ্ধে সেই মা'মলা আ'দালতে চলমান রয়েছে।

Back to top button