.

হবিগঞ্জে থা'নায় যে কারনে কয়েদির মৃ'ত্যু

সিলেট টাইমস ডেস্কঃ হবিগঞ্জ সদর থা'নায় পু'লিশি নি'র্যাতনে চেক ডিজঅনার মা'মলার ফারুক মিয়া (৪৫) নামের এক আ'সামির মৃ'ত্যু হয়েছে বলে অ'ভিযোগ উঠেছে। তবে বিষয়টি অস্বিকার করছে পু'লিশ।সোমবার সকালে হবিগঞ্জ সদর থা'না থেকে আ'সামিকে সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডা. মিঠুন চক্রবর্তী মৃ'ত ঘোষণা করেন। এর আগে রাত ২টার দিকে সদর থা'নার একদল পু'লিশ আ'সামিকে তার বাড়ি থেকে গ্রে'ফতার করে থা'নায় নিয়ে আসে।নি'হত আ'সামি শহরের মোহনপুর এলাকার সঞ্জব আলীর ছে'লে। সে ১৫ হাজার টাকার একটি চেক ডিজঅনার মা'মলার আ'সামি ছিল।

নি'হতের ছে'লে কলেজছাত্র সাঈদুল ইস'লাম অ'ভিযোগ করেন- রাত ২টার দিকে সদর থা'নার একদল পু'লিশ আ'সামির বাড়িতে গিয়ে তাকে গ্রে'ফতার করে। পরে সেখান থেকেই মা'রতে মা'রতে আ'সামিকে থা'নায় নিয়ে আসে। এরপর থা'নায় এনেও রাতভর চালানো হয় নি'র্যাতন। এক পর্যায়ে আ'সামি জ্ঞান হারিয়ে ফেললে সকালে পু'লিশ তাকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে যায়। এ সময় সদর হাসপাতালের চিকিৎসক মিঠুন চক্রবর্তী আ'সামিকে মৃ'ত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে চিকিৎসক মিঠুন চক্রবর্তী বলেন- ‘নি'হতের গায়ে অসংখ্যা আ'ঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তবে এই মূহুর্তে মৃ'ত্যুর আসল কারণ বলা যাচ্ছে না। তবে ময়নাত'দন্ত রিপোর্ট হাতে পেলেই মৃ'ত্যুর আসল কারণ জানা যাব।এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ পু'লিশ সুপার মোহাম্ম'দ উল্ল্যা বলেন- ‘আ'সামিকে রাত ২টার দিকে গ্রে'ফতার করা হয়। এ সময় সে অনেকটা আতঙ্কিত হয়ে পরে। যার ফলে সে স্টোকে আক্রান্ত হয়ে মা'রা যেতে পারে। তবে যদি তার মৃ'ত্যুর কারণে পু'লিশ দায়ি তাকে তাহলে ওই পু'লিশের বি'রুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সূত্রঃকরাঙ্গী নিউজ

Back to top button