পিপিই নেই, মৌলভীবাজারে চিকিৎসকদের ভরসা রেইনকোট

সিলেট টাইমস ডেস্কঃসরকারিভাবে ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জামের (পিপিই) সরবরাহ না করায় নিজেদের সুরক্ষার জন্য রেইনকোট পরে দায়িত্ব  পালন করছেন মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্ম'রত চিকিৎসকেরা। আর নার্সরা কোনো ধরনের সুরক্ষা পোশাক ছাড়াই দায়িত্ব পালন করছেন।মঙ্গলবার উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে এ দৃশ্য দেখা যায়। দুপুরে দেখা যায়, রেইনকোট পরে বহির্বিভাগে সেবা দিচ্ছেন চারজন চিকিৎসক। তাঁদের মুখে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস ছিল। এ সময় সেখানে প্রায় ৫০ জন রোগী ছিল। তবে নার্সদের পরনে কোনো সুরক্ষা পোশাক ছিল না। অন্যদিকে অন্তর্বিভাগে দায়িত্ব পালনরত চিকিৎসকেরা মুখে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস পরে সেবা দিচ্ছেন।

কমলগঞ্জ উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, সরকারি নির্দেশে করো'নাভাই'রাসেআ ক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য পুরোনো ভবনের মহিলা কেবিনে আইসোলেশন কক্ষ তৈরি করে ২০টি শয্যা প্রস্তুত করা হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত করো'না শনাক্ত করার কোনো কিট উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসেনি। একই সঙ্গে এখনো হাসপাতা'লের চিকিৎসক, নার্স ও অন্য স্টাফদের কোনো ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) সরকারিভাবে সরবরাহ করা হয়নি। ফলে জ্বর-সর্দি-কাশির রোগী এলে চিকিৎসক ও নার্সরা আতঙ্কের মধ্যে পড়ছেন। এমন অবস্থায় সরকারের সুরক্ষা পোশাকের জন্য অ'পেক্ষা না করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্ম'রত আটজন চিকিৎসক নিজ খরচে রেইনকোট কিনেছেন।উপজে'লা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মক'র্তা মাহবুবুল আলম ভূঁইয়া বলেন, আসলে সরকারিভাবে সুরক্ষা উপকরণ এখনো আসেনি। তাই নিরাপত্তার জন্য তাঁরা আপাতত রেইনকোট পরে চিকিৎসা দিচ্ছেন।

Back to top button
.